নিজেদের নোয়াখালীর পরিচয় দিচ্ছেন রোহিঙ্গারা!

নিজেদের নোয়াখালীর পরিচয় দিচ্ছেন রোহিঙ্গারা!

পালিয়ে তুরস্ক যাওয়ার প্রস্তুতি নেয়ার সময় চট্টগ্রামের আকবরশাহ এলাকা থেকে বাংলাদেশি পাসপোর্টসহ তিন রোহিঙ্গা গ্রেফতার হয়েছে।এদিকে বায়েজিদ এলাকা থেকে বাংলাদেশি জাতীয় পরিচয়পত্রসহ গ্রেফতার হয়েছেন আরো চারজন। মোবাইল সিম ব্যবহারসহ বিনা বাধায় রোহিঙ্গারা পাসপোর্ট করেছিলো বলে জানায় পুলিশ।

 

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের আকবরশাহ এলাকা থেকে ইউসুফ, মুসা এবং আজিজ নামে ৩ যুবককে আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে ৩টি পাসপোর্ট জব্দ করা হয়।প্রথমে তারা নিজেদের নোয়াখালীর বাসিন্দা বলে দাবি করলেও পরে রোহিঙ্গা বলে স্বীকার করে। তারা জানায়, তুরস্ক দূতাবাসে যাচ্ছিলো ভিসা নিতে। রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট পাইয়ে দেয়ার ক্ষেত্রে সহযোগিতাকারী ৪ জন দালালের নামও পেয়েছে পুলিশ।

 

সিএমপি’র আকবরশাহ থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, তারা বাংলাদেশি পাসপোর্ট দিয়ে তুরস্কের ভিসা আবেদন করে সেখানে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।ইউরোপের একটি রোহিঙ্গা সংগঠনের সঙ্গে তারা যোগাযোগ করেছিলেন। তাদের পরিবারের সকল সদস্যের কাছে বাংলাদেশি মোবাইল সিমকার্ড রয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে তারা বলেছেন, ক্যাম্প থেকেই তারা এই সিমগুলো কিনেছেন।

 

একই সময় বায়েজিদ থানা পুলিশ বামা্ কলোনী থেকে এনআইডি কার্ডসহ আরো ৪ রোহিঙ্গাকে আটক করে। এরমধ্যে ৩ জন নারী এবং ১জন পুরুষ। নিধারিত ক্যাম্প ছেড়ে চট্টগ্রামে আসার ব্যাপারে তারা কোনো সুনির্দিষ্ট কারণ জানাতে পারেনি।বায়োজিদ থানার ওসি আতাউর রহমান খন্দকার বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে তাদের কাছ থেকে কোনো সন্তোষজনক উত্তর পাইনি। একবার বলছেন, বেড়াতে এসেছি, আরেকবার বলছেন, এখানে থাকতে এসেছি।পাসপোর্ট এবং এআইডিসহ ৭ রোহিঙ্গাকে আটকের ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর আগে বৃহস্পতিবার বিকালে পাসপোর্ট করাতে এসে বিভাগীয় পাসপোর্ট কার্যালয় থেকে এক রোহিঙ্গা যুবককে আটক করা হয়েছিলো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© ২০১৯ | ভিউয়ার বাংলাদেশ কর্তৃক সর্বসত্ব ® সংরক্ষিত

Design BY NewsTheme