হারের দায় নিয়ে যা বললেন সাকিব

হারের দায় নিয়ে যা বললেন সাকিব

পঞ্চম দিনের শেষ সেশনের প্রথম ওভার। বল হাতে এলেন আফগান চায়নাম্যান বোলার জহির খান। কিছুটা খাটো লেংথের বল বাঁহাত ঘুরিয়ে করলেন, সেটা কাট শট খেলতে গিয়ে সাকিব (৪৪) ধরা পড়লেন আফসার জাজাইর হাতে। ওই যে চাপে পড়ল বাংলাদেশ, এরপর তা আর কাটিয়ে উঠতে পারেনি। একে একে কাটা পড়লেন মেহেদি হাসান মিরাজ (১২), তাইজুল ইসলাম (০) ও সৌম্য সরকার (১৫)। সাদা পোশাকে সদ্য জন্ম নেওয়া দলটির কাছে ২২৪ রানে হেরে গেল বাংলাদেশ! আর আফগানরা পেল তিন ম্যাচে টানা দুটি টেস্ট ম্যাচ জয়ের স্বাদ।

 

চট্টগ্রাম টেস্টের পঞ্চম দিনে দুই দফায় বৃষ্টির হানায় দুটি সেশন বৃষ্টিতে ভেসে যায়। বাকি ছিল কেবল একটি সেশন। সেটিও ১ ঘণ্টা ১৭ মিনিটের। উইকেটে ছিলেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান, নন্দিত ওপেনার সৌম্য সরকারের মতো সলিড ব্যাটসমানেরা। অফস্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজ, টেলএন্ডার তাইজুল ইসলাম, নাইম হাসানও কালে ভাদ্রে ভালো ব্যাটিং উপহার দিয়ে থাকেন।

বেশি নয়, একটু ইতিবাচক মনেভাব নিয়ে ব্যাটিং করে চাইলেই হারের ম্যাচটি তারা ড্র পারতেন। কিন্তু হলো তার বিপরীত। সাদা পোশাকে সদ্য ভূমিষ্ট দলটির কাছে ২৪৪ রানের বড় ব্যবধানে হেরে গেল ১৯ বছরের অভিজ্ঞ বাংলাদেশ। তাও ঘরের মাঠে, যেখানে গেল ৪ বছরেরও বেশি সময় তারা অপ্রতিরোধ্য। আর এই বিব্রতকর হারের দায়টি নিজের ঘাড়ে তুলে নিলেন বাংলাদেশ দলপতি সাকিব আল হাসান।

 

সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে সাকিব জানালেন, ‘মেনে নেয়া অবশ্যই কষ্টকর। খুবই হতাশাজনক ব্যাপার। যেহেতু চার উইকেট ছিল, এক ঘণ্টা ১০ মিনিট খেলতে হতো। আমি প্রথম বলেই আউট হয়ে যাওয়ায় কাজটা দলের জন্য কঠিন হয়ে গেছে। দায়িত্ব আমার উপরেই পরে, প্রথম বলেই আমি কাটশটটা না খেললেই পারতাম। ওটাতে দল চাপে পড়ে গেছে। যেহেতু আমি উইকেটে ছিলাম মূল ভূমিকা পালনের দায়িত্বটা আমারই ছিল। এটা যদি আমি করতাম হয়তো ড্রেসিংরুম অনেক স্বাচ্ছন্দে থাকতো এবং ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত নিয়ে যেতে পারতাম কিংবা ড্র করা সম্ভব হতো।’অধিনায়ক হিসেবে এই টেস্টে আপনার দলের পারফরম্যান্সকে যদি মার্কিং করতে চান কত দেবেন? সংবাদ মাধ্যেমের করা এমন প্রশ্নে হতাশ সাকিব বললেন, ‘শূন্য’।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 viewer.com.bd
Design BY NewsTheme