একের পর এক বাংলাদেশির মৃত্যু হচ্ছে সৌদি আরবে, দাফন হচ্ছে সেখানেই

গত তিনদিনে সৌদি আরবে সিলেটের কানাইঘাটের ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে গত ৩ মাসে দেশটিতে করোনাসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে কানাইঘাট উপজেলার ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের সবার দাফন সৌদিতেই সম্পন্ন হয়েছে।

 

সর্বশেষ ১৪ সেপ্টেম্বর দুপুরে সৌদি আরবে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন উপজেলার বড়দেশ নয়াপাড়া গ্রামের মাওলানা তোফায়েল আহমদ (৩৫)। এর আগের দিন রোববার সন্ধ্যা ৭টায় তায়েফ সরকারি হাসপাতালে মারা যান কানাইঘাট পৌরশহরের বিষ্ণুপুর গ্রামের রুহুল আমিন (৬০)।

 

আর গত ১২ সেপ্টেম্বর দুপুর ১টার দিকে নিজ কর্মস্থলে হৃদরোগে মৃত্যু হয় কানাইঘাটের ভাউরভাগ নয়াগ্রামের মো. ফখর উদ্দিন (৪৫)। তাদের মৃত্যুর খবরে গ্রামের বাড়িতে শোকের মাতম চলছে।

 

সোমবার সন্ধ্যায় নিহত রুহুল আমিনের ছেলে কামরুজ্জামান বাহার বলেন, ১৩ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৭টায় সৌদি আরবের তায়েফ সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আমার বাবা মারা গেছেন। তিনি জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। এছাড়া গত শনিবার ও সোমবার আরও দু’জন মারা গেছেন বলে নিহতদের পরিবারের সদস্যরা তাদের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন।

 

সৌদি আরবে প্রবাসীদের নিয়ে শ্রমিকদের অধিকার সংরক্ষণে গঠিত সংগঠন ‘প্রবাসী ঐক্য কল্যাণ পরিষদ কানাইঘাট’ এর সাধারণ সম্পাদক এরশাদ আহমদ জানান, গত ৩ মাসে কানাইঘাট উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মোট ১৮ জন রেমিট্যান্সযোদ্ধা সৌদি আরবে করোনাসহ বিভিন্ন রোগে মৃত্যুবরণ করেছেন।

 

তাদের মধ্যে কয়েকজন পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী ব্যক্তি ছিলেন। বর্তমান করোনা পরিস্থিতির জন্য তাদের প্রত্যেককেই সৌদি আরবে আমরা দাফন করেছি।

মতামত দিতে চান?

Please enter your comment!
Please enter your name here