খোলামেলা ছবি পোস্ট করেও নুসরাত বললেন, সমালোচনা আমি গায়ে মাখি না

715
পড়েছে

যে কোনো পেশায় আছে সফলতা, আছে ব্যর্থতাও। তবে ব্যর্থ হতে হতে অনেক সাধারণ মানুষ হয়েছেন রথী-মহারথী। অন্যদিকে কেউ কেউ ব্যর্থতার গ্লানি বয়ে সফলতার সন্ধান করছেন শুরু থেকে এখনও। কবে নাগাদ সফল হবেন তা নিজেও জানেন না। তেমনই একজন চিত্রনায়িকা নুসরাত ফারিয়া।যৌথ প্রযোজনার ছবির মাধ্যমে উপস্থাপনা ছেড়ে সিনেমার আঙিনায় পা রাখেন আজ থেকে প্রায় চার বছর আগে। কিন্তু সফলতা এখনও তার কাছে সোনার হরিণই রয়ে গেছে।সফলতা আর ব্যর্থতা অন্য পেশার মানুষের মতো অভিনয় জগতের মানুষদেরও রয়েছে। তবে এমন শোবিজ কর্মী কমই আছেন যিনি শুরু থেকে সব কাজেই সমালোচিত কিংবা ব্যর্থ হয়েছেন। এদেরই একজন উপস্থাপিকা কাম ঢাকাই ছবির নবাগত নায়িকা নুসরাত ফারিয়া।

 

অনেকেই ‘নবাগত’ শব্দটি পড়ে অবাক হচ্ছেন! কেননা তিনি অনেক ছবিতে এরই মধ্যে প্রধান নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করেছেন। তবুও তাকে ‘নবাগত’ বলা হচ্ছে কেন? এমন প্রশ্ন মনে উদ্রেক হওয়াটা অবান্তর নয়। বরং স্বাভাবিক। সঙ্গে এটাও স্বাভাবিক, তিনি ঢাকাই ছবির সত্যিই নবাগত। কারণ, একাধিক যৌথ প্রযোজনার ছবিতে অভিনয় করলেও বাংলাদেশের একক প্রযোজনায় তার অভিনীত কোনো ছবি মুক্তি পায়নি আজও।অপেক্ষায় আছেন একমাত্র ছবি ‘শাহেনশাহ’ নিয়ে। এটি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল আগামীকাল। কিন্তু সেটিও হচ্ছে না। মুক্তি পিছিয়েছেন প্রযোজক। ঢাকাই ছবিতে অভিষেকটাও হল না সময়মতো! এখানেও ব্যর্থতা!

এটি তার ব্যর্থতা নয় বরং অনেকেই বলছেন, কপাল পোড়া নুসরাত। তার ক্যারিয়ার পর্যালোচনা করার পর অনেকেই বলেন, তিনি উপস্থাপনায় হয়তো কিছুটা ভালো ছিলেন। সেখানেই আরও ভালো করতে পারতেন। তবে কি ছবিতে অভিনয় ভালো করেননি? উত্তরটা সহজ।যৌথ প্রযোজনায় এ পর্যন্ত যতগুলো ছবিতে তিনি অভিনয় করেছেন সব ছবি থেকেই দর্শকরা মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন। ব্যাপক সমালোচিত হয়েছেন ‘আল্লাহ মেহেরবান’ নামে একটি গানে অশ্লীল দৃশ্য ও নাচের জন্য। যদিও পরবর্তীতে ‘আল্লাহ মেহেরবান’ শব্দ দুটি গান থেকে বাদ দিয়ে ‘ইয়ারা মেহেরবান’ করা হয়। কিন্তু সমালোচনা তাকে শুনতেই হয়েছে।২০১৫ সালে প্রথম অভিনয় করার পর এ পর্যন্ত কোনো ছবিতে সফলতা পাননি নুসরাত ফারিয়া। অভিনয়ের ব্যর্থতা দূর করতে গানেও কণ্ঠ দেন তিনি। ‘পটাকা’ নামে একটি গান করেছেন। গানটি প্রকাশের পর অনলাইনে বাংলাদেশের দর্শক কীভাবে প্রত্যাখ্যান করেছেন তা সবাই জানেন।

 

নুসরাত ফারিয়াই বাংলাদেশি শোবিজকর্মী যার মিউজিক ভিডিওতে সবচেয়ে বেশি ডিসলাইক ও অপ্রীতিকর মন্তব্য করেন দর্শকরা। গানে ব্যর্থতার পর শেষঅবধি নুসরাত ফারিয়া কি শরীর দেখিয়ে দর্শকদের কাছে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন? অনেকে তা-ই বলছেন। সম্প্রতি নিজের ফেসবুক পেজ থেকে একটি খোলামেলা ছবি পোস্ট করেন তিনি। যেখানে একেবারে খোলামেলা কিছু ছবি পোস্ট করেছেন, যা বাংলাদেশি বাঙালি সংস্কৃতির সঙ্গে একেবারেই বেমানান। যদিও কাজটি ফারিয়া নিজ থেকেই করেছেন। ছবি পোস্ট নিয়েই শুরু করা যাক তার সঙ্গে আলাপ।আপনি কি সচেতনভাবেই এ ছবি পোস্ট করেছেন নাকি ফেসবুক কিছু সময়ের জন্য হ্যাক্ড হয়? এমন প্রশ্নের জবাবে নুসরাত ফারিয়া বলেন, ‘এ ছবি আমিই পোস্ট করেছি। এটি আমার ব্যক্তিগত বিষয়। আমি আমার মতো করে যে কোনো ছবি পোস্ট করতেই পারি। এ নিয়ে কাউকে কৈফিয়ত দিতে আমি প্রস্তুত নই।’

 

অনেকে বলছেন, আপনি অভিনয়ে ব্যর্থ হয়েছেন। কেননা আপনি একাধিক জনপ্রিয় তারকার সঙ্গে অভিনয় করেছেন বটে কিন্তু দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে সফল হননি। এ নিয়ে আপনার বক্তব্য কী? এমন প্রশ্নের জবাবে নুসরাত ফারিয়া সচেতনভাবেই দেন। তিনি বলেন, ‘একজন অভিনয়শিল্পীর কাজ অভিনয় করা। আমি অভিনয় করে যাচ্ছি। কোন কাজ দর্শক নেবে বা নেবে না, তা আমি জানি না। তবে আমি আমার সর্বাত্মক চেষ্টা করে অভিনয় করছি, গান গাওয়ার চেষ্টা করছি। আমি ব্যর্থ তা শুনতে রাজি নই।’আবারও সমালোচনা নিয়ে কথা বলা যাক। আপনি কি অভিনয়ে সফল হতে পারেননি বলে গানে আসতে চেয়েছিলেন? উত্তরে নুসরাত বলেন, ‘গান তো ভেতর থেকে আসে। ছোটবেলা থেকে গানের প্রতি আমার ঝোঁক ছিল। সে থেকে গানে আসা। একটিমাত্র মিউজিক ভিডিও নিয়ে কাজ করেছি। সামনে আরও করব।’

প্রথম কাজেই দর্শক ডিজলাইক দিয়ে আপনাকে প্রত্যাখ্যান করেছেন। তবুও আপনি এ মাধ্যমে কাজ করতে চাইছেন? এর জবাবে তিনি বলেন, ‘সমালোচকরা সমালোচনা করবেই আমি এসব গায়ে মাখি না, শুনতেও চাই না। আমি আমার মেধা খাটিয়ে কাজ করি। আগামীতেও কাজ করে যাব।’বর্তমানে ‘ভয়’ নামে কলকাতার একটি ছবিতে অভিনয় করছেন নুসরাত ফারিয়া। এতে তার বিপরীতে অভিনয় করছেন অঙ্কুশ। এ ছবিতে তাকে প্রথমবারের মতো স্কুল শিক্ষিকার চরিত্রে দেখা যাবে। এরই মধ্যে ছবির ৩০ ভাগ শুটিং শেষ হয়েছে। আগামী ৯ সেপ্টেম্বর তিনি দুবাই যাবেন এ ছবির শুটিং করতে। সেখান থেকে কলকাতায় পাড়ি জমাবেন। অন্যদিকে দীপংকর দীপনের ‘ঢাকা ২০৪০’ নামে একটি ঢাকাই ছবিতেও অভিনয় করছেন তিনি। এ ছবিতে তার অংশের প্রায় বেশিরভাগ শুটিং শেষ হয়েছে বলে জানান নুসরাত।

মতামত দিতে চান?

Please enter your comment!
Please enter your name here